পূর্বধলায় বারবার ভ্রাম্যমান আদালতের রায়ের পরও বন্ধ হয়নি সিলগালাকৃত ইটভাটার কাজ

প্রকাশিত: ১:১২ অপরাহ্ণ, মে ৩, ২০২১

নেত্রকোণার পূর্বধলা উপজেলার খলিশাউড় ইউনিয়নের প্রতাপপুর গ্রামে মেসার্স স্টার ব্রিকস ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিধি নিষেধ অমান্য করেই চালিয়ে যাচ্ছে তাদের উৎপাদন কার্যক্রম। মুছলেকা দিয়েও চালু রয়েছে ইটভাটার কাজ। স্থানীয় অনেকে রসিকতা করে বলছেন, “প্রশাসনের থেকেও শক্তিশালী ইটভাটা!!!”

উল্লেখ্য মেসার্স স্টার ব্রিকস ইটভাটায় পরিবেশ ছাড়পত্র ও অন্যান্য প্রমাণপত্র না থাকায় চলতি বছরের ১৮ জানুয়ারি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে সকল কার্যক্রম বন্ধ করে সীলগালা করেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট নাসরিন বেগম সেতু।

কিন্তু ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্দেশ অমান্য করে উৎপাদন কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার অপরাধে সীলগালার ৩মাস পর গত ১৯ এপ্রিল সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাসরিন বেগম সেতু পুনঃরায় অভিযান চালিয়ে ৫০ হাজার টাকার জারিমানা আদায় এবং ৭ দিনের মধ্যে সমস্ত কার্যক্রম বন্ধের মুছলেকা নেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বারবার ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করার পরও একদিনের জন্যেও ইটভাটার কার্যক্রম বন্ধ থাকেনি।

স্টার ব্রিকসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কছম উদ্দিন মুছলেকার কথা স্বীকার করে বলেন, চলতি বছরের কার্যক্রম শেষের দিকে আর কিছুদিন পর পুরোপুরি ইটভাটা বন্ধ করে দেওয়া হবে।

নেত্রকোনা জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কাজী মো. আব্দুর রহমান বলেন, এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে সকল নির্দেশনা দেওয়া আছে তিনি সমস্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মে কুলসুমের সাথে মোবাইল ফোনে কথা হলে তিনি বলেন, গত দুদিন আগে তিনি ঐ দিকে গিয়েছিলেন ইটভাটা বন্ধ আছে। তারপর সরেজমিনের এর বাস্তব চিত্র উপস্থাপন করলে তিনি প্রতিবেদকে বলেন, হয়তো চালু থাকতে পারে উনার জানা নেই। তবে এবিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।