পূর্বধলা হেল্পলাইন নির্ভরতার নাম

প্রকাশিত: ১০:২৩ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৯, ২০২১

নেত্রকোণার পূর্বধলায় স্থানীয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক গ্রুপগুলোর মধ্যে পূর্বধলা হেল্পলাইন অন্যতম। ২০১৮ সালে প্রতিষ্ঠিত ফেসবুক গ্রুপটি সাড়া ফেলেছে স্থানীয়দের মধ্যে। ইতোমধ্যে সদস্য সংখ্যা ২৫হাজার। গ্রুপটির কর্মকান্ডে প্রসংশিত হচ্ছে সর্ব মহলে। করোনার সময়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পূর্বধলা হেল্পলাইন অক্সিজেন সাপোর্টে টিম অক্সিজেন সিল্ডিার সেবা দিয়েছে ৩৪ মুমূর্ষু রোগীকে। যা স্থানীয়দের মুখে মুখে প্রশংসা কুড়িয়েছে।

২০১৮ সালে উপজেলার কয়েকজন তরুণের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠা পাওয়ার পর গ্রুপটিতে পূর্বধলা সম্পর্কিত যেকোন তথ্য ও প্রশ্নের সমাধান পাওয়া যাচ্ছে মুহুর্তের মধ্যে। অনলাইন স্বাস্থ্য সেবা, সমকালীন শিক্ষা, প্রবীন শিক্ষক আড্ডা, উপজেলার গুণীজনদের নিয়ে গুণীজন আড্ডা, স্কুল, কলেজের পরীক্ষার ফলাফল, এডমিশন, কোন দপ্তরের নাম্বার দরকার, কারো নিজের বাজেটের মধ্যে ফোন দরকার, হারানো খবর, জরুরী প্রয়োজনে রক্তের প্রয়োজন, অনিয়ম-দুর্নীতি, অসহায় ব্যক্তির সহায়তা এমন আরো অনেক বিষয়ের পোস্ট হচ্ছে প্রতিনিয়ত গ্রুপটিতে। এগিয়ে আসছেন গ্রুপে থাকা সদস্যরা ও সমাজের দাতা ব্যক্তিরা। সমস্যার সমাধান হচ্ছে দ্রুত সময়ের মধ্যে। এজন্য উপজেলাবাসীর আস্থা ও নির্ভরতার জায়গা অর্জন করতে পেরেছে গ্রুপটি।

আমিনুল ইসলাম হেল্পলাইন সম্পর্কে বলেন, “পূর্বধলা হেল্পলাইনে ক্রয়-বিক্রয়, হারানো ও তথ্য চেয়ে যে কোন পোস্ট করলে দ্রুত সময়ের মধ্যে সঠিক উত্তর পাওয়া যায়। তাই এই গ্রুপটির পথ চলা দীর্ঘ হোক।”

জানা যায়, কেবিএম নোমান শাহরিয়ার পূর্বধলা হেল্পলাইনের ক্রিভেটিভ এডমিন। প্রতিষ্ঠার পর থেকে এ গ্রুপে আনুষ্ঠানিক নতুন কোন এডমিন যুক্ত করা হয়নি। তাদের কার্যক্রমে ভিন্নতা আনতে ২০২২ সালে নতুন এডমিন যুক্ত করতে পারে বলে গুঞ্জন শুনা যাচ্ছে।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন এডমিন বলেন, পূর্বধলা হেল্পলাইন গ্রুপ মডারেটরদের থেকে যাদের কার্যক্রমে এডমিন প্যানেল সক্রিয়/বিশ্বস্থ কর্মট মডারেটরদের এডমিন প্যানেলে জায়গা হওয়ার বিধান রয়েছে। নতুন বছরের শুরুর দিকে এ প্রক্রিয়া হতে পারে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিনিয়র এডমিন মোহাম্মদ আলী জুুয়েল বলেন, এ বিষয়ে আমাদের এখনও কোন সিদ্বান্ত হয়নি। তবে এটি একটি চলমান পক্রিয়া, আমাদের এডমিন প্যানেল নিয়মিত কাজ করে চলেছে। পরবর্তি মিটিং এ বিষয়ে চুড়ান্ত কিছু বলা যাচ্ছে না। পূর্বধলার ফেসবুক ব্যবহারকারীদের চাওয়া পূর্বধলা হেল্পলাইন যেভাবে সাহায্যের হাত ছড়িয়ে দিয়েছে তাদের কার্যক্রম অব্যহত রাখুক। পূর্বধলা হেল্পলাইন দীর্ঘজীবি হউক।